April 16, 2021, 4:50 pm

সংবাদ শিরোনাম

সাহারা খাতুনের কফিনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের শ্রদ্ধা

image_pdfimage_print

প্রতিবেদক:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর অন্যতম সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপির কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

শনিবার সকালে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক একেএম আফজালুর রহমান বাবুর নেতৃত্বে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী মেজবাহুল হোসেন সাচ্চু, সাবেক সমাজ কল্যাণ সম্পাদক নাফিউল করিম নাফা, কেন্দ্রীয় নেতা সাদেক, হান্নান, জাফর আজিজ, ও মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি গোলাম রাব্বানী প্রমুখ।

অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন দেশরত্ন শেখ হাসিনার আস্থাভাজন ও বিশ্বস্ত সহযোদ্ধা হিসাবে সংগঠনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর একজন আদর্শের সৈনিক হিসাবে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন। ওয়ান ইলেভেনে দেশরত্ন শেখ হাসিনার কারামুক্তি আন্দোলনে আদালত ও রাজপথে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিটে তিনি থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সাহারা খাতুন।

তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, বিরোধীদলীয় নেতাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা শোকপ্রকাশ করেছেন।

জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন সাহারা খাতুন ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। এরপর অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে স্থানান্তর করা হয়। ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকলে আবার তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। অসুস্থ সাহারা খাতুনকে ৬ জুলাই এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে থাইল্যান্ডে নেয়া হয়।

সাহারা খাতুন ১৯৪৩ সালের ১ মার্চ ঢাকার কুর্মিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম আব্দুল আজিজ ও মাতার নাম টুরজান নেসা। শিক্ষাজীবনে তিনি বিএ এবং এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন এবং রাজনীতির পাশাপাশি আইন পেশায় নিযুক্ত ছিলেন।

ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্ররাজনীতিতে নাম লেখান। আইন পেশায় আসার পর সক্রিয়ভাবে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন।

সাহারা খাতুন একাদশ জাতীয় সংসদেরও একজন সদস্য ছিলেন। ঢাকা-১৮ আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে তিনি প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Freelancer Zone