মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
মায়ের ওপর অভিমান করে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রের আত্মহত্যা বাংলাদেশে আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না: কৃষিমন্ত্রী ভাসানচর থেকে পালাতে এলাকাবাসীর হাতে ধরা খেল ১৮ রোহিঙ্গা নিউ ইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী নোয়াখালীতে মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণে গোলাগুলি,গুলিবিদ্ধ-১ কিডনী ডায়ালাইসিস কমপ্লেক্সের তৃতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন পরিষদের সব কাজে উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুমোদন নেবেন ইউএনও বন্ধুর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার-১ নোয়াখালীতে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বিতর্ক প্রতিযোগিতা সাড়ে ১২ কোটি টাকা সমমূল্যের বিদেশি মুদ্রাসহ শাহজালালে আটক ১

নোয়াখালীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ৪

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছারপুর ইউনিয়নে বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষিত ওই কিশোরী চট্টগ্রামের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে বলে জানা গেছে। ঘটনায় চার যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় লোকজন। তবে পুলিশ বলছে, ওই কিশোরী একজন ভাসমান প্রতিতা।

সোমবার দুপুরে ধর্ষিতা কিশোরীসহ পাঁচজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আটকরা হচ্ছেন- বসুরহাট-চট্টগ্রাম রুটের বসুরহাট এক্সপ্রেসের হেলপার উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইমন (১৯), মুছাপুর ২নং ওয়ার্ডের সাইফুল ইসলাম (২৯), রামপুর ৭নং ওয়ার্ডের বাঞ্চারাম এলাকার সিএনজিচালক জামাল উদ্দিন পিয়াস (২৩) ও একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মক্কানগর এলাকার নসিমনচালক মহি উদ্দিন (৩৫)।

ধর্ষিতা কিশোরী অভিযোগ করে বলেন, চট্টগ্রামের থাকা অবস্থায় ইমন তার সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলে। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে রবিবার রাতে চট্টগ্রাম থেকে বসুরহাট এক্সপ্রেস বাস যোগে কোম্পানীগঞ্জে বসুরহাট বাস স্টান্ডে নিয়ে আসে তাকে। সেখান থেকে ইমনের সহযোগী সিএনজিচালক জামাল উদ্দিন পিয়াস সিএনজি নিয়ে এসে তাকে ও ইমনকে মুছাপুরে সাইফুলের বাড়িতে নিয়ে যায়। রাতে সাইফুলের বাড়ির একটি টিনের ঘরে ইমন তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার এলাকার রামচন্দ্রপুর গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সাইফুলের বাড়ির একটি ঘর থেকে রাতে এক নারীর ঘোঙরানির শব্দ পেয়ে ঘরে গিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় তাদের আটক করে। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রবিউল হক জানান, ধর্ষণের ঘটনা ঘটেনি। ওই কিশোরী একজন ভাসমান প্রতিতা। প্রতিয়মান হওয়ায় ওই কিশোরী ও আটক চার যুবককে ২৯০ ধারায় আদালতে পাঠানো হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, রাতে এলাকায় সন্দেহজনকভাবে ঘুরাঘুরি করায় এলাকার লোকজন তাদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Shera Web