May 8, 2021, 7:52 am

সংবাদ শিরোনাম

লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত নোয়াখালীর আবদুল কাদের কে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

image_pdfimage_print

প্রতিবেদক: মোহাম্মদ আবদুল কাদের ২৮ বছরের টগবগে এক যুবক। সবকিছুই ঠিকঠাক চলছিলো তার। মাইজদী স্টেশনে নিজের ওয়ার্কশপ এর একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সে প্রতিষ্ঠানের ইনকামে স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে বেশ সুখেই দিন কাটছিলো কাদেরের। এলাকার হিন্দু মুসলিম থেকে শুরু করে ছোট-বড় সকলের কাছেই একজন ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিতি রয়েছে তার।

তার নিজস্ব ওয়ার্কসপ প্রতিষ্ঠান থাকায় এলাকার প্রায় মসজিদ মাদ্রাসার কাজ গুলো বিলা লাভে করে দিতেন তিনি। হঠাৎ এক ঝড় এসে সবকিছু এলোমেলো করে দিলো কাদেরের।

বলছিলাম নোয়াখালীর সদর উপজেলার কাদির হানিফ ইউনিয়নের ফতেহপুর ৪নং ওয়ার্ডের ক্যান্সারে আক্রান্ত আবদুল কাদেরের কথা। গত ১ বছর আগে হঠাৎ করে কাদেরের প্রচন্ড বুমি শুরু হলে তাকে প্রাথমিকভাবে স্থানীয় ডাক্তারের মাধ্যমে চিকিৎসা দেওয়া হয়, পরবর্তীতে অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকলে ২৪/০৭/২০১৯ তারিখে তাকে প্রথমে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এরপর মাইজদী প্রাইম হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখানো এবং নানান পরিক্ষা নিরিক্ষার পর গ্যাস্টো লিভার বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মাসুদ তাকে দ্রুত ঢাকা নেওয়ার পরামর্শ দেন।

পরবর্তীতে ১৯/০৮/২০১৯ তারিখে তাকে ঢাকা আহমেদ মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। সেখানে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা জানান তার লিভারে সমস্যা এবং রক্তে প্লাজমা উৎপাদন বন্ধ হয়ে গিয়েছে।। তারপরও এভাবে তার পরিবার কিছুদিন চিকিৎসা চালিয়ে যায়। কোন পরিবর্তন না দেখে ৪/১০/২০১৯ তারিখে তাকে ঢাকার ল্যাব এইড মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। সেখানে লিভার রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার শামসুল কবির বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার পর জানান আবদুল কাদেরের লিভার ক্যান্সার হয়েছে।।

প্রাথমিকভাবে ডাক্তার কিছু ঔষধ দেন। পরবর্তীতে ডাক্তাররা তাকে ঢাকা মহাখালী ক্যান্সার হাসপাতালে অথবা উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ইন্ডিয়া নেওয়ার পরামর্শ দেন। না হলে যে কোন সময় তার মৃত্যু হতে পারে বলে জানিয়ে দেন।
আবদুল কাদের নিজেই এলাকার যুব সমাজকে নিয়ে সামাজিক ও মানবিক কাজগুলো করতেন নিয়মিত। সমাজের সবার কাছে অন্যরকম নম্র ভদ্র একটি ছেলে হিসেবে তার বেশ শুনাম রয়েছে। এলাকার অসহায় মানুষদের যে কোন সহযোগিতায় তিনি সবার আগে এগিয়ে আসতেন। আজ সে নিজেই মরনব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু পথযাত্রী।

টাকা পয়সা, জায়গা জমি যা ছিলো সবকিছু ইতিমধ্যে তার চিকিৎসা চালাতে গিয়ে শেষ। বর্তমানে টাকার অভাবে নিজ ঘরে বিছানায় শুয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছে আবদুল কাদের। কোন উপায় না পেয়ে সে সমাজের বিত্তবান ও দেশবাসী এবং সকল প্রবাসীদের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন। আপনাদের একটু সহযোগিতায় হইতো বেঁচে যেতে পারে একটি প্রাণ। ২৮ বছরের এই যুবক ফিরে পেত পারে তার সাজানো সুখের সংসারটি।আবদুল কাদের কে সহযোগিতা করতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন।
মোবাইল –
০১৮৭৫ ১৪৯ ৩৬৪ বিকাশ ও যোগাযোগ (নুর নাহার বেগম, কাদেরের স্ত্রী)
০১৭১৫ ৬৯২ ৮৫৫ ( ভাই)
০১৮১৯ ৮৩০ ৯২৪ ( ভাই)
ব্যাংক একাউন্ট
মুদারাবা সঞ্চয়ী হিসাব নং – ৫০১৪৬
ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড।
মাইজদী কোর্ট শাখা, নোয়াখালী।।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Freelancer Zone