বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২১ অপরাহ্ন

মেঘনায় বরযাত্রীবাহী ট্রলার ডুবি,আরো ১ শিশুর মরদেহ উদ্ধার, এখনো নিখোঁজ ৭

প্রতিবেদক: নোয়াখালীর হাতিয়ার মেঘনা নদীতে নলেরচর থেকে ভোলার মনপুরা যাওয়ার পথে মঙ্গলবার বিকেল ৩ টায় ডালচর এলাকায় বরযাত্রীবাহী ট্রলার ডুবির ঘটনায় আরো এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।

শুক্রবার (১৮ডিসেম্বর) দুপুর ৩টার দিকে হাতিয়ার টাংকির চর সংলগ্ন নদী থেকে হাছান (৭) কে কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোন (ভোলা) এর ডুবুরি দল, কোস্টগার্ড স্টেশন হাতিয়া এবং স্টেশন রামগতি কর্তৃক চলমান সার্চ এন্ড রেসকিউ কার্যক্রমে মরদেহটি উদ্ধার করে।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় সার্চ এন্ড রেসকিউ দলের নেতৃত্বে থাকা হাতিয়া কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট এস এম তাহসিন রহমান, (এক্স), বিএন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, ওই দুঘটনার পর থেকে এখনো নিখোঁজ রয়েছে ৭জন। তবে এখন পর্যন্ত ৩ দাপে ৮টি মরদেহ করা হয়েছে। এখনো পর্যন্ত নিখোঁজ ৭ জনের মরদেহ উদ্ধারে কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে বলে জানান।

জানা যায়, এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত নববধু ,নারী ও শিশুসহ ৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলেও এখনো ৮জন নিখোঁজ রয়েছে। এখনো নিখোঁজরা হলেন, জাকিয়া বেগম (৫৫) ,নার্গিস বেগম (৪), হালিমা (৪), লামিয়া (৩), নিহা (১), আমির হোসেন ও আলিফ (১)।

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, হাতিয়ার নলের চরে বিয়ে অনুষ্ঠান শেষে নববধু নিয়ে বরসহ ট্রলার যোগে ভোলার মনপুরা যাওয়ার পথে ট্রলারটি ডালচর এসে পৌছঁলে মেঘনা নদীর তীব্র স্রোতের মুখে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়।

নিহতরা হলেন- হাতিয়ার চানন্দী ইউনিয়নের থানার হাট এলাকার ইব্রাহীম সওদাগরের মেয়ে নববধু তাছলিমা (২০), হরণী ইউনিয়নের মোহম্মদপুর গ্রামের আক্তার হোসেনের মেয়ে আসমা বেগম (১৯), সদর উপজেলার বদরপুর গ্রামের আকবর হোসেনের মেয়ে আফরিনা আক্তার লামিয়া (৯), একই এলাকার আলমগির হোসেনের মেয়ে লিলি আক্তার( ৮), নলেরচরের কালাদুর গ্রামের ফয়জ্জুল্লার মেয়ে হোসনে আরা বেগম (৫), চানন্দী ইউনিয়নের পূর্ব আজিম নগর গ্রামের আলা উদ্দিনের স্ত্রী রাহেনা বেগম (৩০), একই এলাকার খোরশেদ আলমের স্ত্রী নুরজাহান (৬৫), হাছান (৭), হাতিয়ার চানন্দী ইউনিয়নের আব্দুল কাদেরের ছেলে।

নিহত নববধুর পিতা ইব্রাহীম সওদাগর জানায়, হাতিয়ার ডালচরে ট্রলার ডুবির এ ঘটনা ঘটলেও প্রবল স্রোতে ৫টি লাশ ভেসে যায় লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতিতে। জেলেরা নদীতে ভাসমান লাশগুলো ভাসতে দেখে তাদের উদ্ধার করে টাংকির ঘাটে নিয়ে আসে। পরে তারা রামগতি থানা পুলিশকে কে খবর দেয়। অপরদিকে ২ টি লাশ পাওয়া যায় চানন্দি ঘাটে। ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার পরে অনেকে সাঁতার কেটে ও অন্য ট্রলারের সহযোগীতায় তীরে উঠতে সক্ষম হলেও শিশুসহ ৮জন নিখোঁজ রয়েছে। তিনি আরো জানান, তার মেয়ে তাছলিমার সাথে হাতিয়ার ঢালচরের বেলাল মেস্তুরীর ছেলে ফরিদ উদ্দিনের বিবাহ হয়। মঙ্গলবার তাছলিমাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে বরের বাড়ীতে নেওয়ার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Shera Web