মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট চলবে বিধিনিষেধে শিল্পকারখানা খুললে আইনানুগ ব্যবস্থা: প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় আরও একজন গ্রেফতার দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে ১৬৮ জনের মৃত্যু ভাইভা ছাড়াই ৮ হাজার ডাক্তার-নার্স নিয়োগ দেয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে শ্বাসরোধে হত্যা সুবর্ণচরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ ভাইস চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলার পর শান্তির প্রস্তাব কাদের মির্জার নোয়াখালীতে মিথ্যা মামলায় প্রতিপক্ষকে হয়রানী করায় একনারী জেল হাজতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার আম উপহার

শনিবার কোম্পানীগঞ্জে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় শনিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। শুক্রবার রাত ৯টায় ফেসবুক লাইভে এসে কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি।

শুক্রবার বিকালে চাপরাশিরহাট বাজারে কাদের মির্জা ও মিজানুর রহমান বাদল অনুসারী আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৫০-৬০ জন নেতাকর্মী আহত হন। আহতদের কাদের মির্জা নিজের অনুসারী দাবি করে এবং তাকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তুলে এর প্রতিবাদে এ হরতালের কর্মসূচি দেয়া হয়।

এদিকে সংঘর্ষের ঘটনাস্থল থেকে আসার সময় চরকাঁকড়া টেকেরবাজার নামক স্থানে বাদল গ্রুপের সদস্য হিসেবে পরিচিত ফখরুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে রাস্তায় ব্যারিকেড দিলে আবদুল কাদের মির্জা গাড়িবহরসহ অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। কয়েক ঘণ্টা পর কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ, অতিরিক্ত রিজার্ভ পুলিশ ও র্যা বের কয়েকটি গাড়ি গিয়ে সড়ক অবরোধ তুলে দিয়ে মেয়র কাদের মির্জাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে নেতাকর্মী ও সাংবাদিকদের কাদের মির্জা জানান, এমপি একরাম চৌধুরীর বাড়িতে শুক্রবার দুপুরে বৈঠক শেষে সন্ত্রাসীদের দুই ভাগে বিভক্ত করে আমার নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছ। এর মধ্যে বাদলের নেতৃত্বে চাপরাশিরহাট ও সবুজের নেতৃত্বে টেকেরবাজারে হামলার ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনায় মিজানুর রহমান বাদল, চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাক, নজরুল ইসলাম শাহীন, হাসিবুস শাহীদ আলোক, ফখরুল ইসলাম সবুজ, ভাগিনা ফখরুল ইসলাম রাহাত, মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু, মাহবুবুর রহমান আরিফ অস্ত্র নিয়ে গুলি করেছে।

কাদের মির্জা অভিযোগ করেন, প্রশাসনের সহযোগিতা ছাড়া এ আক্রমণ সম্ভব নয়। এজন্য আমি এ ঘটনার মামলায় নোয়াখালীর ডিসি, এসপি, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি ও পরিদর্শককে (তদন্ত) আসামি করব। এছাড়া ফেনীর নিজাম হাজারী এমপি, নোয়াখালীর একরামুল করিম চৌধুরী এমপি, ফেনী পৌরসভার মেয়র স্বপন মিয়াজী, দাগনভুঞা উপজেলা চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন, সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপন, নোয়াখালী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন জেহান, সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব বেলায়েত হোসেন, সেতুমন্ত্রীর এপিএস মহিতুল, পিএ আবদুল মতিন ও পিআরও নাছেরকেও এ মামলায় আসামি করা হবে।

অন্যদিকে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদল এ ঘটনার জন্য মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও তার সমর্থকদের দায়ী করেছেন। তিনি তার ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, গত দুই মাস যাবত আবদুল কাদের মির্জা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ দলের অনেক সিনিয়র নেতাদের কটাক্ষ করে বক্তব্য দিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি করে আসছেন। এর প্রতিবাদে একটি সংবাদ সম্মেলন করার জন্য শুক্রবার বিকালে তার এলাকা চরফকিরা ইউনিয়নের সব ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়ে একটি প্রস্তুতিমূলক বৈঠকের ডাক দেয়া হয়। এতে কাদের মির্জার নেতৃত্বে শত শত অস্ত্রধারী সেখানে হামলা চালায়। এতে তার বহু নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে তিনি দাবি করেন।

প্রসঙ্গত, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে শুক্রবার বিকালে কাদের মির্জা ও মিজানুর রহমান বাদল সমর্থিত আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে স্থানীয় এক সংবাদকর্মীসহ উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিচার্জ, শটগানের ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Shera Web