শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

আশ্রয়ণ প্রকল্পে অনিয়ম: সারাদেশে পরিদর্শনে তদন্ত দল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ ঘর পাবে, প্রতিটি ঘর আলোকিত হবে এবং চিকিৎসাসেবা মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে। বাংলাদেশ হবে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত একটি দেশ। সেই ধারাবাহিকতায় সারাদেশে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলাতে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের পুনর্বাসনে গৃহীত প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে ঘর নির্মাণ চলছে।

ওই প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে ইতোমধ্যে অনেক জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অনিয়ম করে নিম্নমানের কাজ করায় নির্মাণকরা ঘরগুলো ভেঙে পড়ছে।  গণমাধ্যমে এমন প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছে প্রকল্পের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। ইতোমধ্যে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় দেশের বিভিন্নস্থানে গৃহহীন পরিবারকে উপহার দেওয়া ঘরগুলো পরিদর্শনে নামছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ৫টি প্রতিনিধি দল।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্র জানায়, শুক্রবার (৯ জুলাই) সকাল থেকে সারা দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলাকে ভাগ করে পরিদর্শন শুরু করবে এই ৫ দল। ঢাকা, রাজশাহী, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় নির্মিত ঘরগুলো পরিদর্শন করবেন তারা।

উচ্চ পর্যায়ের ৫ প্রতিনিধি দলের একটিতে নেতৃত্ব দেবেন আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের পরিচালক মো. মাহবুব হোসেন। বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় নির্মিত এবং নির্মাণাধীন বাড়িগুলোর নির্মাণশৈলী ও গুণগতমান অনুমোদিত ডিজাইন ও প্রাক্কলন অনুযায়ী হয়েছে কি না তা যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে পরিদর্শনকারী দলগুলোকে।

যেকোনো পরিস্থিতিতে এই পরিদর্শন কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. মাহবুব হোসেন।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে প্রতিটি কেসই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ প্রতিটি বাড়ির সঙ্গে একেকটি পরিবারের স্বপ্ন জড়িত। এজন্যই এ রকম একটি মহামারি পরিস্থিতির মধ্যেও আমরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পরিদর্শনে যাচ্ছি।

মো. মাহবুব হোসেন বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্প প্রধানমন্ত্রীর সর্ববৃহৎ মানবিক প্রকল্প। এ প্রকল্পের অনিয়ম বা গাফলতি নিয়ে আমাদের অবস্থান শুরু থেকেই জিরো টলারেন্স। ইতোমধ্যে যেসব জায়গা থেকে অভিযোগ এসেছে সেসব জায়গায় প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। একইসঙ্গে আমরা যেসব বাড়ি নীতিমালা মেনে নির্মাণ হয়নি সেসব বাড়ি সংস্কার অথবা পুনর্র্নিমাণ করব। যা যা প্রয়োজন সব কিছু করে দেবো।

তিনি বলেন, অতিবৃষ্টি, বন্যা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে কিছু কিছু জায়গায় বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা সেসব জায়গায় পুনরায় বাড়ি নির্মাণ অথবা সংস্কার করে দিচ্ছি। তবে এই মানবিক প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্পকে বিতর্কিত করতে একটি মহল অপপ্রচারে লিপ্ত আছে। এটি কাম্য নয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ওপর আস্থা রাখুন। ভূমিহীন-গৃহহীন সবাইকে বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হবে।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
© All rights reserved © 2017 nktelevision
Design & Developed BY Shera Web